1. [email protected] : Rangpur24.com : Mahfuz prince
লালমনিরহাটে ভেঙে গেলো আশ্রয়ন প্রকল্পের ঘর - rangpur24
বুধবার, ১২ মে ২০২১, ০৯:০২ পূর্বাহ্ন
Title :
ঈদের আনন্দ ভাগাভাগিতে মানবতায় মানুষ সংগঠনের ঈদ উপহার ও মাক্স বিতরণ আমরাই পাশে রংপুর গ্রুপের উদ্যোগে তরুণদের দেয়া নতুন জামা পেলে সুবিধাবঞ্চিত শিশুরা করোনায় কেউ না খেয়ে মরেনি : তথ্য প্রতিমন্ত্রী পিছিয়ে গেল বুয়েটের ভর্তি পরীক্ষা মালয়েশিয়ায় ঈদ বৃহস্পতিবার করোনার মধ্যেই নির্বাচন কিনা সিদ্ধান্ত ১৯ মে বিপন্ন কর্মহীন মানুষের মাঝে রংপুর চেম্বারের খাদ্যসামগ্রী বিতরণ রাণীশংকৈলে আলী আকবর প্রতিবন্ধী স্কুলে ঈদ উপহার বিতরণ করোনার ভারতীয় ভ্যারিয়েন্ট সন্দেহ সৈয়দপুরে একই পরিবারের ৪  জন পজিটিভ, বাসা লকডাউন আজ বীরমুক্তিযোদ্ধা ও লালিয়া টেইলার্স এর স্বাত্তাধিকারী মকবুল হোসেনের ৩য় মৃত্যু বার্ষিকী

স্যামসাং প্রিমিয়াম ব্র্যান্ড শপ এখন আর,এ,এম,সি শপিং কমপ্লেক্স এর পঞ্চম তলায়। শপ নংঃ- ২,৩,৪ প্রয়োজনেঃ- ০১৩২২৭১৪৮৪৭, ০১৮১৮৭০১৮৭২

লালমনিরহাটে ভেঙে গেলো আশ্রয়ন প্রকল্পের ঘর

  • Update Time : রবিবার, ১৮ এপ্রিল, ২০২১
  • ১১০ Time View

ঝড়ে ভেঙ্গে গেল গরীরের স্বপ্ন। বসবাস শুরু করার আগেই লালমনিরহাটে ভেঙে গেলো প্রধানমন্ত্রীর দেয়া উপহার আশ্রয়ন প্রকল্পের ঘর।
শুক্রবার(১৬ এপ্রিল) দিনগত মধ্যরাতে সদর উপজেলার মোগলহাট ইউনিয়নের কোদালখাতা আশ্রয়নে সামান্য ঝড়ে ভেঙ্গে পড়েছে বারান্দার পিলার ও উড়ে গেছে ঘরের টিন।
জানা গেছে, মুজিব শতবর্ষ উপলক্ষে সারা দেশে ভুমিহীনদের পাকা বাড়ি উপহার দিতে আশ্রয়ন প্রকল্প-২ গ্রহন করে সরকার। এ প্রকল্পের আওতায় প্রতিটি ভুমিহীন পরিবারের জন্য দুইশতাংশ জমি, দুই কক্ষের একটি পাকা ঘর, রান্না ঘর ও টয়লেটেসহ একটি বাড়ির মালিকানা উপহার প্রদান করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সদর উপজেলায় ১৫০টি পরিবারের আবাসনের জন্য অর্থ বরাদ্ধ দেয়া হয়। প্রতিটি বাড়ির নির্মাণ ব্যয় ধরা হয়েছে ১ লাখ ৭১ হাজার টাকা। প্রথম দিকে খাস জমি সনাক্ত করে ভুমি অফিস। এরপর সেই খাস জমিতে পাকা বাড়ি তৈরীর কাজ বাস্তবায়ন করেন সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) উত্তম কুমার।
এরই মাঝে শুক্রবার(১৬ এপ্রিল) দিনগত মধ্যরাতে সামান্য ঝড়ে ঘরের বারান্দার পিলার ভেঙ্গে টুকরো টুকরো হয়েছে। উড়ে গেছে বারান্দাসহ ঘরের ছাউনির টিন। বসবাস শুরুর আগেই ভেঙ্গে পড়ায় আতংক বিরাজ করছে সুফলভোগীদের মাঝে।
সুফলভোগী ও স্থানীয়রা জানান, নিম্নমানের নির্মান সামগ্রী দিয়ে দায়সারা ভাবে কাজ সমাপ্ত করা হয়েছে। টয়লেটে সিরামিকের প্যান বসানোর কথা থাকলেও বসানো হয়েছে প্লাস্টিকের প্যান। ব্যবহারের আগেই ফেঁটে চৌচির টয়লেট। নেই পানি ও বিদ্যুতের ব্যবস্থা। চলাচলের মত রাস্তাও নেই। শুরু থেকে ভাল মানের কাজের দাবি করে আসলেও সুফলভোগিদের সেই দাবি কেউ রাখেনি। এখন সামান্য ঝড়ে ভেঙ্গে চুরমার হয়েছে ভুমিহীনদের স্বপ্নের সেই পাকা ঘর। ঘুমন্ত শরীরের ঘর ভেঙ্গে পড়ার আশংকায় সুবিধাভোগীরা।

লালমনিরহাট সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা(ইউএনও) উত্তম কুমার বলেন, স্টিমেট অনুযায়ী কাজ করা হয়েছে। যা বরাদ্ধ তাই ব্যয় করা হয়েছে। ঝড় হলে তো ঘরে ভেঙ্গে যেতেই পারে। ভেঙ্গে যাওয়া ঘর মেরামত করে দেয়া হবে। সেই সাথে সকল সমস্যা সমাধান করা হবে।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published.

More News Of This Category
© All rights reserved © 2021 রংপুর২৪ডটকম-সত্য প্রকাশে সারাক্ষণ[email protected]
Md Prince By rangpur24.com