1. [email protected] : Live Rangpur :
শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৪, ১১:০১ পূর্বাহ্ন

স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড ব্যাংক মেটলাইফের সাথে চালু করলো ব্যাঙ্কাসুরেন্স

  • Update Time : রবিবার, ৩ মার্চ, ২০২৪
  • ৬৭ Time View
স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড ব্যাংক মেটলাইফের সাথে চালু করলো ব্যাঙ্কাসুরেন্স
স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড ব্যাংক মেটলাইফের সাথে চালু করলো ব্যাঙ্কাসুরেন্স

প্রথম আন্তর্জাতিক ব্যাংক হিসেবে স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড ব্যাংক মেটলাইফের সাথে চালু করলো ব্যাঙ্কাসুরেন্স

ঢাকা, ৩ মার্চ ২০২৪- স্ট্যার্ন্ডার্ড চার্টার্ড বাংলাদেশ, মেটলাইফ বাংলাদেশের সাথে অংশীদারিত্বের মাধ্যমে ব্যাঙ্কাসুরেন্স পরিসেবা চালুর ঘোষণা দিয়েছে। মূল্যবান গ্রাহকদের সর্বাত্মক আর্থিক সমাধান দিতেই এই কৌশলগত উদ্যোগ হাতে নেওয়া হয়েছে। এই অংশীদারিত্ব স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড ব্যাংকের বিস্তৃত শাখা ও ডিজিটাল চ্যানেলগুলোর মাধ্যমে বিস্তৃত বীমা পণ্য ও পরিসেবাসমূহ পেতে সুযোগ করে দেবে।

ব্যাংকিং ও ইন্সুরেন্সের মধ্যে সমন্বয় সাধনের মাধ্যমে ব্যাঙ্কাসুরেন্স দক্ষ ও যত্ন সহকারে তৈরি করা আর্থিক পণ্য ও পরিসেবাসমূহের জন্য গ্রাহকদের জন্য ওয়ান-স্টপ সল্যুশন নিয়ে এসেছে। স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ডের গ্রাহকেরা যারা ব্যাঙ্কাসুরেন্স সুবিধা পাবেন তারা কাস্টমাইজড বীমা পরিকল্পনা উপভোগ করবেন, দাবি প্রক্রিয়া সহজ ও তরান্বিত করা, ব্যাংকের ডিজিটাল চ্যানেলের মাধ্যমে প্রয়োজনীয় ফি দেওয়ার সুযোগ ও এককভাবে রিলেশনশিপ ম্যানেজারদের সেবা পাবেন। বৈশ্বিক শীর্ষস্থানীয় দুটি আর্থিক প্রতিষ্ঠান স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড ও মেটলাইফ বাংলাদেশে গ্রাহকদের সেবা দেওয়ার দীর্ঘ ইতিহাস রয়েছে। স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড হলো দেশের প্রাচীনতম ব্যাংক, যাদের ১১৯ বছরেরও বেশি সময় ধরে উপস্থিতি রয়েছে, আর মেটলাইফ বাংলাদেশের নেতৃস্থানীয় জীবন বীমাকারী প্রতিষ্ঠান। গ্রাহকদের সহজে জীবনবীমা পন্য পেতে এবং তাদের সম্পদের সুরক্ষা দিতে সক্ষম এই যৌথ উদ্ভাবনী এবং গ্রাহককেন্দ্রিক ব্যাঙ্কাসুরেন্স সেবা।

স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ডের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা নাসের এজাজ বিজয় বলেন,বাংলাদেশে সিইও হিসেবে দায়িত্ব নেওয়ার পর থেকে আমি ব্যাঙ্কাসুরেন্সের পক্ষে কাজ করছি – কারণ স্থানীয়ভাবে ইন্সুরেন্স মোট দেশজ উৎপাদন (জিডিপি) ০.৪১ শতাংশ, যা কিনা ইন্সুরেন্স সেক্টরের ক্ষেত্রে অপার সম্ভাবনাকে নির্দেশ করে। ব্যাঙ্কাসুরেন্সের মাধ্যমে আমাদের প্রশিক্ষিত ও সার্টিফাইড সহকর্মীরা আমাদের বিশ^স্ত ক্লায়েন্ট ও গ্রাহকদের জন্য ওয়ান-স্টপ আর্থিক সেবা দেবে। ঝুঁকি ব্যবস্থাপনা, আর্থিক সুরক্ষা এবং দীর্ঘমেয়াদী পরিকল্পনাসহ ব্যাঙ্কাসুরেন্স বিভিন্ন পরিপ্রেক্ষিতে একটি গুরুত্বপূর্ণ সেতু হিসেবে কাজ করবে। অধিকহারে ব্যাঙ্কাসুরেন্স গ্রহনের ফলে ঝুঁকি বহুমুখীকরণ, কম প্রিমিয়াম, পুঁজি বাজারের উন্নয়ন এবং সামগ্রিক জিডিপি বৃদ্ধি পাবে। বাংলাদেশে ব্যাঙ্কাসুরেন্স বাস্তবায়নে মেটলাইফের সাথে অংশীদার হতে পেরে আমরা গর্বিত, কারণ আগামী ২০৩১ সালের মধ্যে বিশ্বব্যাপী বীমা খাতের আকার হবে দ্বিগুন। “

মেটলাইফ বাংলাদেশের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা আলা আহমদ বলেন, “ স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড ব্যাংকের সাথে আমাদের ব্যাঙ্কাসুরেন্স কার্যক্রম বাংলাদেশে গ্রাহকের ক্রমবর্ধমান চাহিদা দায়িত্বের সাথে পূরণ ও বীমার ব্যাপারে আস্থা দৃঢ় করার জন্য আমাদের দীর্ঘমেয়াদী প্রয়াসের প্রতিফলন। আমি বিশ^াস করি যে, ব্যাঙ্কাসুরেন্স আর্থিক নিরাপত্তার একটি কার্যকর পদ্ধতি হিসাবে আবির্ভূত হবে কারণ এটি ব্যাংকের গ্রাহকদের জন্য মেটলাইফের বিশ^স্ত বীমার সুরক্ষা নিয়ে জীবনের নানা পরিকল্পনার বাস্তবায়ন করা আরো সহজ করবে। “

সহনশীলতা ও বাংলাদেশের প্রবৃদ্ধির অসাধারণ যাত্রায় একটি অবিচল অংশীদার হিসেবে স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড ১১৯ বছর ধরে বিস্তৃত অঙ্গীকারের উত্তরাধিকারকে সমর্থন করে। এই নতুন অফারটি বাংলাদেশের খুচরা ব্যাংকিং শিল্পকে রূপান্তরিত করতে ব্যাংকের উত্তরাধিকারে আরেকটি ‘প্রথম’ যোগ করেছে। স্টান্ডার্ড চার্টার্ড এদেশে শুধু প্রথম ক্রেডিট কার্ড চালুই নয়, সেই সাথে প্রথম এটিএম, ইন্টারনেট ব্যাংকিং সমাধান এবং বাংলাদেশে একটি স্বয়ংক্রিয় ২৪ ঘন্টা কল সেন্টারও প্রথম চালু করেছিল। ২০২৩ সালে মে মাসে ব্যাংক মেটলাইফ এবং মাস্টারকার্ডের সাথে অংশীদারিত্বে দেশের প্রথম বীমা ট্যাগযুক্ত ক্রেডিট কার্ড ও অ্যাসিউরেন্স কার্ড চালুর পথপ্রদর্শক।

মেটলাইফ, দেশের শীর্ষস্থানীয় বীমা কোম্পানি, যারা শিক্ষা, স্বাস্থ্য, স য় ও বিনিয়োগ এবং অবসরগ্রহনসহ বিভিন্ন প্রয়োজনের জন্য বিস্তৃত পরিসরে বীমা সমাধান অফার করে। মেটলাইফের গ্রাহকের দাবি নিষ্পত্তির অসামান্য ট্রাক রেকর্ড রয়েছে। ২০২৩ সালে মেটলাইফ ২,৯৮১ কোটি টাকার দাবি নিষ্পত্তি করে। বিগত ৬ বছরে নিষ্পত্তি করা দাবির সংখ্যা ১০,৫০০ কোটি টাকার বেশি।

Please Share This Post in Your Social Media

More News Of This Category
© All rights reserved © Rangpur24.com 0176414680 [email protected]