April 14, 2021, 11:43 pm

স্যামসাং প্রিমিয়াম ব্র্যান্ড শপ এখন আর,এ,এম,সি শপিং কমপ্লেক্স এর পঞ্চম তলায়। শপ নংঃ- ২,৩,৪ প্রয়োজনেঃ- ০১৩২২৭১৪৮৪৭, ০১৮১৮৭০১৮৭২

হাতীবান্ধায় বিএনপি’র দুই গ্রুপের হাতাহাতি

Reporter Name
  • Update Time : Monday, March 22, 2021
  • 60 Time View

লালমনিরহাটের হাতীবান্ধায় বিএনপি’র বর্ধিত সভাকে কেন্দ্র করে কেন্দ্রীয় বিএনপি’র সাংগঠনিক সম্পাদক অধ্যক্ষ আসাদুল হাবিব দুলু’র উপস্থিতিতে নেতা-কর্মীদের দুই গ্রুপের মধ্যে হাতাহাতির ঘটনা ঘটেছে। বর্ধিত সভা শেষে বিএনপি’র নেতারা চলে গেলে বর্ধিত সভার চেয়ার ও টেবিল ভাংচুর করেন ছাত্রলীগের কিছু নেতা-কর্মী। রোববার দুপুরে ওই উপজেলার বাসষ্টান্ড এলাকায় বিএনপি’র পুরাতন পার্টি অফিসে বিএনপি’র দুই গ্রুপের হাতাহাতি ও বিএনপি নেতা মোশারফ হোসেনের বাড়িতে বর্ধিত সভা শেষে ছাত্রলীগের হামলার ঘটনা ঘটে।
স্থানীয়রা জানান, ওই উপজেলায় বিএনপি’র বর্ধিত সভায় যোগ দিতে বিএনপি’র কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক অধ্যক্ষ আসাদুল হাব্বি দুলু লালমনিরহাট থেকে সড়ক পথে হাতীবান্ধা আসে। এ সময় বাসষ্টান্ড এলাকায় বিএনপি’র পুরাতন পার্টি অফিসের সামনে সাবেক এমপি জয়নুল আবেদীন সরকারের বড় পুত্র সায়েদুজ্জামান কোয়েলসহ তার সমর্থিত নেতা-কর্মীরা দুলু’র মাইক্রোবাস থামিয়ে নানা অভিযোগ করেন। এ সময় উপজেলা বিএনপি’র আহবায়ক মোশারফ হোসেন ও সদস্য সচিব আফজাল হোসেন মিয়া’র সমর্থিত নেতা-কর্মীর সাথে কোয়েল সমর্থিত নেতা-কর্মীদের হাতিহাতির ঘটনা ঘটে। তাৎক্ষনিক সিনিয়র নেতাদের উপস্থিতিতে পরিস্থিতি শান্ত হয়। পরে উপজেলা বিএনপি’র আহবায়ক মোশারফ হোসেনের বাড়িতে বর্ধিত সভা হয়।
এ দিকে বর্ধিত সভা শেষে বিএনপি’র নেতা-কর্মীরা চলে গেলে পাশে আওয়ামীলীগ অফিস থেকে বের হয়ে ছাত্রলীগের কিছু নেতা-কর্মীরা বর্ধিত সভার চেয়ার টেবিল ভাংচুর করেন। এ সময় সাউন্ড সিস্টেমের এক শ্রমিককেও মারধর করা হয়েছে। এর আগে বিএনপি বর্ধিত সভার আয়োজন করলে একই দিনে পাল্টা কর্মসুচীর ঘোষনা দেয় উপজেলা ছাত্রলীগ।

এ ঘটনায় বিএনপি নেতারা বলেন, রাতে ছাত্রলীগের কিছু ছেলে বর্ধিত সভার ব্যানার খুলে নিয়ে যায়। বর্ধিত সভা শেষে আমরা চলে গেলে সভার চেয়ার ও টেবিল ভাংচুর করে ছাত্রলীগ। তবে এসব অভিযোগ অস্বীকার করে উপজেলা ছাত্রলীগের সম্পাদক পারভেজ হোসেন বলেন, ছাত্রদল আহবায়ক ছাত্রলীগ নিয়ে বাজে মন্তব্য করায় তাকে ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা ধাওয়া করলে ছাত্রদল নেতা রুবেল বিএনপি নেতা মোশারফ হোসেনের বাড়ির দিকে পালিয়ে যায়।
হাতীবান্ধা থানার ওসি (তদন্ত) রফিকুল ইসলাম বলেন, ছাত্রদলের এক নেতা ছাত্রলীগ নিয়ে বাজে মন্তব্য করলে উত্তেজনা দেখা যায়। এ সময় দুই একটি চেয়ার ভাংচুরের ঘটনা ঘটে। পরে পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করেন।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published.

More News Of This Category