April 13, 2021, 1:48 am

স্যামসাং প্রিমিয়াম ব্র্যান্ড শপ এখন আর,এ,এম,সি শপিং কমপ্লেক্স এর পঞ্চম তলায়। শপ নংঃ- ২,৩,৪ প্রয়োজনেঃ- ০১৩২২৭১৪৮৪৭, ০১৮১৮৭০১৮৭২

রংপুরে লালবাগ বাজারের নির্বাচন কমিশন সদস্যের হাতে প্রার্থী লাঞ্ছিত : মামলা

Reporter Name
  • Update Time : Wednesday, March 3, 2021
  • 95 Time View

ব্যবসায়ি সংগঠনের নির্বাচন পরবর্তী ভোটারকে কেন্দ্র করে এক পরাজিত প্রার্থী নির্বাচন কমিশন বরাবর অভিযোগ দিতে গিয়ে লাঞ্ছিত হয়েছে। নগরীর লালবাগ বাজার ব্যবসায়ি সমিতির নির্বাচন কমিশনের নামে এবার মামলা দায়ের করার খবর পাওয়া গেছে।
জানা গেছে, রংপুর নগরীর লালবাগ বাজার ব্যবসায়ি সমিতির নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয় গত ১৬ ফেব্রুয়ারি। ব্যবসায়ি সংগঠনটির ত্রি-বার্ষিক নির্বাচনে গঠিত নির্বাচন কমিশনের চেয়ারম্যানসহ অপর সদস্যদের নামে ভোটার তালিকা প্রস্তুত করণে একই ব্যক্তির ২ প্রতিষ্ঠানের নামে ২টি ভোটার কার্ড পরিচয়পত্র দেয়াসহ তালিকায় বিভিন্ন অসঙ্গতি দেখা যায়।
এদিকে, দক্ষিণ বাবুখাঁ এলাকার মৃত মমিনুল ইসলামের ছেলে লালবাগ বাজারের মদিনা জুয়েলার্সের স্বত্ত্বাধিকারী জাহিদুল ইসলাম মিঠু পাটোয়ারী ওই নির্বাচনে আইন বিষয়ক সম্পাদক পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। নির্বাচনে সভাপতিসহ সকল সদস্য নির্বাচিত সম্পূন্ন বে-আইনী, নির্বাচন কমিশন সফিউর রহমান, জাকারিয়া সরকার এবং চাঁন মিয়া নামে যোগসাজস করার অভিযোগ এনে নির্বাচন বাতিলসহ পূনরায় ভোট দানের দাবি জানান। অপরদিকে, গত ২৭ ফেব্রুয়ারি একই এক দুই ভোটার কার্ড বিষয়ে নির্বাচন কমিশন বরাবর লিখিত অভিযোগ করতে গেলে প্রার্থীকে লাঞ্ছিত করে। এদিকে মামলার বিবাদী নির্বাচন কমিশন সদস্য ও পাতানো নির্বাচনে নামমাত্র বিজয়ীদের যোগসাজসে আগামী ৪ তারিখ অভিষেক অনুষ্ঠান করার পায়তারা চালাচ্ছে। আজ (মঙ্গলবার) রংপুরের সদর সিনিয়র সহকারী জজ আদালতে একটি মামলা দায়ের করেন ভুক্তভোগী প্রার্থী। যার অন্য মামলা নং-৩৫/২০২১।
এ ব্যাপারে, জাহিদুল ইসলাম মিঠু পাটোয়ারী বলেন, আমি নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করি। আমাকে নির্বাচনে পরাজিত করা হয়েছে নির্বাচন কমিশন যোগসাজসে এটা করা হয়। পরে জানতে পারি ভোটার তালিকার মাধ্যমে জাল ভোট বানানোর বিষয়টি ফাঁস হয়ে পড়ে। গত ২৭ তারিখ রাত ৮টারদিকে লিখিত অভিযোগ দিতে গেলে কমিশনের সদস্যরা আমাকে লাঞ্ছিত কওে উল্টো আমি না-কি অস্ত্র নিয়ে তাদের হুমকি দিয়েছি। এটা মিথ্যা অভিযোগ ছড়াচ্ছে তারা। ন্যায্য অধিকার থেকে আমাকে বি ত করছে কমিশনের সদস্যরা। এটা কি মানবাধিকার লঙ্ঘন নয়? পাতানো নির্বাচন বাতিল করে পূনরায় নির্বাচনের দাবি জানিয়ে আমি আইনের আশ্রয় নিয়েছি।
অপরদিকে নির্বাচনে জয়ী এক প্রভাবশালী নেতার সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, নির্বাচনের সকল কার্যক্রম ঠিক হয়েছে। নির্বাচন কমিশনের লোকজন দায়িত্ব দিয়েছেন আমাদের। অভিষেক অনুষ্ঠান সফল করতে কার্যক্রম চলছে। মিঠু মামলা দিয়ে কিছু করতে পারবে না বলে মন্তব্য করেন।

Please Share This Post in Your Social Media

Comments are closed.

More News Of This Category