April 14, 2021, 11:04 pm

স্যামসাং প্রিমিয়াম ব্র্যান্ড শপ এখন আর,এ,এম,সি শপিং কমপ্লেক্স এর পঞ্চম তলায়। শপ নংঃ- ২,৩,৪ প্রয়োজনেঃ- ০১৩২২৭১৪৮৪৭, ০১৮১৮৭০১৮৭২

গঙ্গাচড়ায় নির্যাতন ও প্রতারণার শিকার নববধুর সংবাদ

Reporter Name
  • Update Time : Tuesday, March 30, 2021
  • 592 Time View

এইচএসসি পড়–য়া এক ছাত্রীকে পছন্দ হওয়ায় প্রেমের ফাঁদে ফেলে ৬ লক্ষ ১ হাজার ১’শত ১ টাকা দেন মোহরে বিয়ে করে ঘরে তুলে কম্পিউটার প্রিন্ট ব্যবসায়ী প্রেমিক বর। প্রায় দু-মাস ঘর সংসার করার পর যৌতুকের জন্য বিভিন্নভাবে নির্যাতন চালাতে থাকে প্রেমিক বরসহ শশুর ও শাশুড়ি। নির্যাতনেও যৌতুক না পেয়ে ওই নববধুকে খাবারের সাথে বিষ পানে হত্যার চেষ্টা করে। হত্যার চেষ্টায় ভাগ্যক্রমে বেঁচে গেলে, প্রতারনার মাধ্যমে কৌশলে তালাক নামার কাগজে স্বাক্ষর নিয়ে নববধুকে অন্যত্র রেখে আসে প্রেমিক বর।

প্রতারনা ও নির্যাতনের শিকার প্রেমিক বরসহ শশুর-শাশুড়ির বিরুদ্ধে থানায় এজাহার দেয়। ঘটনাটি ঘটেছে রংপুরের গঙ্গাচড়া ইউনিয়নের কুটিপাড়ায়। রোববার রাতে সংবাদ সম্মেলনে এমন ঘটনা জানান নির্যাতন ও প্রতারনার শিকার নববধু রেজোয়ানা। গঙ্গাচড়া ইউনিয়নের মুন্সিপাড়ার রেজাউল করিমের মেয়ে ও এইচএসসি ২য় বর্ষের ছাত্রী রেজোয়ানা। একই ইউনিয়নের কুটিপাড়ার আফজাল হোসেনের পুত্র ও গঙ্গাচড়া বাজারে কম্পিউটার প্রিন্ট ব্যবসায়ী মেহেদী হাসানের সাথে তার প্রেমের সর্ম্পক গড়ে উঠে। প্রেমের সর্ম্পকে তার সাথে একাধীক বার শারীরিক সর্ম্পকে মিলিত হয়। পরে স্ত্রীর মর্যাদা দিয়ে ঘরে তোলার জন্য ৬ লক্ষ ১ হাজার ১’শত ১ টাকা দেন মোহর নির্ধারণ করে নোটারী পাবলিক কার্যালয়ে এফিডেভিট এর মাধ্যমে উভয় পরিবারের সম্মতিতে রেজিষ্ট্রী ও ইসলামী শরিয়তে বিবাহ সম্পূর্ণ করে প্রেমিক বর তার ঘরে তুলে। ঘরে তোলার ২ মাস যেতে না যেতে যৌতুকের জন্য প্রেমিক বর, শশুর, শাশুড়ি, দেবর ও ভাসুর বিভিন্নভাবে নির্যাতন চালাতে থাকে।

নির্যাতনেও যৌতুক না পেয়ে কৌশলে ১৮ মার্চ খাবারের সাথে বিষ মিশিয়ে তাকে হত্যার চেষ্টা করে। আমি অসুস্থ্য হলে চিকিৎসায় বেঁচে যাই। হত্যার চেষ্টা ব্যর্থ হলে আবার কৌশল অবলম্বন করে বেড়ানোর কথা বলে প্রেমিক বর ২৩ মার্চ রংপুর আদালত প্রাঙ্গণে নিয়ে যায়। সেখানে আগে থেকে থাকা তার লোকজনসহ আমাকে কোন কিছু বুঝতে না দিয়ে সাদা কাগজ দিয়ে ঢেকে রাখা কাগজে আমার স্বাক্ষর নেয়। এরপর ২৫ মার্চ আবার বেড়ানোর কথা বলে লম্পট বর আমাকে আনুর বাজারে আমার ফুপুর বাড়িতে নিয়ে যায়। ফুপুর বাড়িতে আমাকে রেখে তার বাড়িতে চিরদিনের জন্য যেন না যাই হুমকি দিয়ে চালে যায়।

পরে আমি বিভিন্ন মাধ্যমে জানতে পারি আমাকে দিয়েই তালাক স্বাক্ষর নেওয়া হয়েছে। নিরুপায় হয়ে প্রতারক, লম্পট প্রেমিক বর, শশুর, শাশুড়ি, দেবর ও ভাসুরের বিরুদ্ধে থানায় এজাহার দেই। বর্তমানে আমি আমার ফুপুর বাড়িতে অবস্থান করছি। সংবাদ সম্মেলনে রেজোয়ানা লম্পট প্রতারক বরসহ তার পরিবারের সবাইকে দ্রুত আইনের আওতায় এনে শাস্তির দাবি করেন। সংবাদ সম্মেলনে রেজোয়ানার ফুপু ও ফুপা উপস্থিত ছিলেন।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published.

More News Of This Category