ব্রেকিং নিউজ-
রংপুর পলিটেকনিক ইন্সটিটিউট রোভার স্কাউট গ্রুপের পাখির অভয়ারণ্য তৈরীর কার্যক্রম শুরু** তেঁতুলিয়ায় নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে পিকনিকের বাস খাঁদে পড়ে নিহত ১** অমর একুশে বইমেলা ও রংপুরের আইডিয়া প্রকাশন** ঠাকুরগাঁওয়ে নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘন করে মোটরসাইকেল শোডাউন ** নাগেশ্বরীতে দুধকুমর নদী থেকে বালু উত্তোলন হুমকীর মুখে, রাস্তা, ব্রীজ, মসজিদসহ শতশত বাড়ি** ঠাকুরগাঁওয়ে নিজ দোকানের ভিতর থেকে নরসুন্দরেরর লাশ উদ্ধার** বিজিবি’র সদস্যদের তদন্ত শেষেই তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার আশ্বাস ** কাহারোলে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে তিনটি পদে ১৯ জন প্রার্থী মনোনয়ন জমা** বদরগঞ্জে ১২ প্রার্থীর মনোনয়নপত্র দাখিল** গঙ্গাচড়ায় ৫ জনের মনোনয়নপত্র দাখিল **

যাবজ্জীবন পাওয়া জুয়েল না.গঞ্জের সেই ডেভিডের ভাই

নিউজ ডেক্স

রংপুর টুয়েন্টিফোর ডটকম , বিষেশ বুলেটিন

11 October, 2018 -> 1:53 am.

২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলায় জড়িত থাকার দায়ে ১৯ জনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। এ ১৯ জনের মধ্যে একজন হলেন শাহাদাতউল্লাহ জুয়েল। তিনি নারায়ণগঞ্জের আলোচিত যুবদল নেতা র‌্যাবের সঙ্গে ক্রসফায়ারে নিহত মমিনউল্লাহ ডেভিডের ছোট ভাই। জুয়েল একই সঙ্গে ২০০১ সালের ১৬ জুন নারায়ণগঞ্জে আওয়ামী লীগ অফিসে বোমা হামলা মামলার ১২ নম্বর আসামি। তাঁকেসহ ছয়জনকে জড়িয়ে এরই মধ্যে অভিযোগপত্র আদালতে দাখিল করা হয়েছে। মামলাটি এখন বিচারাধীন। জানা গেছে, ২০০৭ সালের ২৭ নভেম্বর শহরের ৯/১, মিশনপাড়ার বাসভবন থেকে জুয়েলকে গ্রেপ্তার করে র‌্যাব-১১। চাষাঢ়া বোমা হামলা ছাড়াও জুয়েলের বিরুদ্ধে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু এভিনিউ কার্যালয়ের সামনে আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনার সমাবেশে গ্রেনেড হামলার অর্থ জোগান দেওয়ার অভিযোগ রয়েছে। রমনায় বর্ষবরণ অনুষ্ঠানে বোমা হামলার মামলায় চার্জশিটভুক্ত আসামি জুয়েল বর্তমানে কারাগারে বন্দি। জুয়েল নারায়ণগঞ্জ শহর স্বেচ্ছাসেবক দলের একসময়ের আহ্বায়ক ছিলেন। রিমান্ডে থাকাকালীন ২০০৯ সালের ৬ সেপ্টেম্বর নারায়ণগঞ্জ সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আশরাফুজ্জামান জিলানীর কাছে লিখিত জবানবন্দিতে জুয়েল বলেছিলেন, ২০০১ সালের ১৬ জুন চাষাঢ়া আওয়ামী লীগ অফিসে বোমা হামলার ঘটনায় মুফতি হান্নান, ভারতের দিল্লিতে কারাবন্দি আনিসুল মোরসালিন ও মুহিবুল মুত্তাকিন, হুজির সামরিক কমান্ডার আহসান উল্লাহ কাজল, হুজি তোতা, হুজি আবু জানদালসহ কয়েকজন জঙ্গি নেতা জড়িত। এ ব্যাপারে নারায়ণগঞ্জ মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট খোকন সাহা বলেন, ‘শাহাদাতউল্লাহ জুয়েলই ২১ আগস্টে প্রথম গ্রেনেড ছুড়ে মারেন। রায়ে আমি নীতিগতভাবে সন্তুষ্ট হতে পারিনি। তাঁর ফাঁসি হওয়া উচিত ছিল। এ ছাড়া এই জুয়েলই ২০০১ সালে চাষাঢ়া বোমা হামলার আসামি। সেই বোমা হামলারও দ্রুতবিচার দাবি করছি।’