মেডিকেলে চান্স পেলো সৈয়দপুর সরকারি কারিগরি কলেজের ৩৬ শিক্ষার্থী

সাদিকুল ইসলাম সাদিক

সৈয়দপুর প্রতিনিধি , নীলফামারী

8 October, 2018 -> 10:44 am.

উত্তরবঙ্গের ঐতিহ্যবাহী বিদ্যাপীঠ সৈয়দপুর সরকারি কারিগরি কলেজ। নতুন করে এই প্রতিষ্ঠানকে পরিচয় করিয়ে দেওয়ার কিছু নেই। প্রতিষ্ঠানটি তার সূচনা লগ্ন থেকে আজও ধরে রেখেছে ধারাবাহিক সাফল্যগাথা। প্রতিবছর বিভিন্ন পাবলিক পরীক্ষায় নীলফামারীর সৈয়দপুরের এই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটির ঈর্ষণীয় ফলাফল যে কাউকে অবাক করবে। বরাবরই জেএসসি, এসএসসি ও এইচএসসিতে শতভাগ পাশের হার এই প্রতিষ্ঠানকে অনন্য উচ্চতায় নিয়ে গেছে। সেই সাথে জিপিএ ৫ প্রাপ্তির হারও বেশ নজরকাড়া। . এইতো গতবছর জেএসসি পরীক্ষায় এই প্রতিষ্ঠান থেকে ৫৯ জন পরীক্ষার্থী অংশগ্রহণ করে সকলে জিপিএ ৫ প্রাপ্তির গৌরব অর্জন করে। এবছর এইচএসসি পরীক্ষায় ২৬২ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে জিপিএ ৫ পেয়েছে ১৫৬ জন। সেই সাথে পাশের হার শতভাগ। সদ্য প্রকাশিত মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষায় সৈয়দপুর সরকারি কারিগরি কলেজের ৩৬ জন শিক্ষার্থী মেডিকেলে চান্স পেয়েছে। এরমধ্যে সজিব চন্দ্র রায় জাতীয় মেধা তালিকায় তৃতীয় স্থান অধিকার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজে চান্স পেয়ে সকলকে তাক লাগিয়ে দিয়েছে। এছাড়াও আমেনা খাতুন মেধা তালিকায় ৪৯ তম হয়ে ঢাকা মেডিকেল কলেজে চান্স পাওয়ার কৃতি অর্জন করেছে। . বাকিদের মধ্যে রিশাদ ফারুক (ঢাকা মেডিকেল কলেজ), দেবোস্মিতা সরকার (সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজ), কাজী ঈফফাত জাহান (সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল), বিথি রায় (রাজশাহী মেডিকেল কলেজ), কনিকা তাবাসসুম যুথি (চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ), মোবাশ্বেরা জান্নাত সাকী (বগুড়া মেডিকেল কলেজ), মামনুন নাহার মিম (পাবনা মেডিকেল কলেজ), রোশনী হোসেন জ্যোতি (খুলনা মেডিকেল কলেজ), অাফরিন জাহান অংকন (সাতক্ষিরা মেডিকেল কলেজ), রওনক জাহান (বগুড়া মেডিকেল কলেজ), অারিফা ই-অারজু অানজুম (দিনাজপুর মেডিকেল কলেজ), মোঃ খুশবু (কিশোরগনজ মেডিকেল কলেজ), রিনা অাকতার রিমু (ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ), ফারদিনা হোসেন মিলা (কুস্টিয়া মেডিকেল কলেজ), সাজেদুর রহমান (জামালপুর মেডিকেল কলেজ), শেখ ফরিদ (রংপুর মেডিকেল কলেজ), অাল অামিন (চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ), তুষার (হবিগন্জ মেডিকেল কলেজ), মনোজকুমার (ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ), মোনায়েম (চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ), হিমেল (বরিশাল মেডিকেল কলেজ), অাকতার হিমেল (রংপুর মেডিকেল কলেজ), প্রীতম (সাতক্ষিরা মেডিকেল কলেজ), বিপ্লব (সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ), মিমতিয়া জান্নাত (শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজ), অাসিফ অাল অাজাদ (সাতক্ষিরা মেডিকল কলেজ), গোকুল চন্দ্র রায় (চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ), সম্প্রীতি (রংপুর মেডিকেল কলেজ), ইসতিয়াক অর্ণব (সিলেট মেডিকেল কলেজ), হামজা (দিনাজপুর মেডিকেল কলেজ), শিপ্রা দেবনাথ (সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ), উলফাত জাহান (রংপুর মেডিকেল কলেজ), মারজিয়া বিনতে মাহবুব (দিনাজপুর মেডিকেল কলেজ) ও কাজী ইফফাত জাহান (সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ) এ চান্স পাওয়ার গৌরব অর্জন করেছে। . জাতীয় মেধা তালিকায় তৃতীয় স্থান লাভ করা সৈয়দপুর সরকারি কারিগরি কলেজের মেধাবী শিক্ষার্থী সজিব চন্দ্র রায় এক সাক্ষাতকারে জানান, 'ছোটবেলা থেকে ডাক্তার হওয়ার স্বপ্ন দেখেছি। আপনারা সবাই আমার জন্য দোয়া করবেন যেনো আমি একজন ভালো ডাক্তার হয়ে দেশের সেবা করতে পারি।' মেধাতালিকায় ৪৯ তম স্থান পাওয়া সৈয়দপুর সরকারি কারগরি কলেজের আরেক মেধাবী শিক্ষার্থী আমেনা খাতুন জানান, 'আমার এই সফলতার পিছনে কৃতিত্ব দিতে চাই আমার প্রতিষ্ঠানের শ্রদ্ধেয় শিক্ষকবৃন্দকে। তারা অনেক যত্নসহকারে আমাদের পাঠদান করেছে। পড়াশোনা বিষয়ক বিভিন্ন সমস্যার সমাধান দিয়েছে। সর্বোপরি আমাদের উৎসাহ দিয়ে স্বপ্নের পথে পা বাড়াতে সহযোগিতা করেছে। সবাই দোয়া করবেন। যেনো আমি আমার স্বপ্ন পূরণ করতে পারি।' . সৈয়দপুর সরকারি কারিগরি কলেজের এমন ধারাবাহিক সাফল্যের পিছনের কারণ জানতে চাইলে প্রতিষ্ঠানটির অধ্যক্ষ আমির আলী আজাদ এই প্রতিবেদককে জানান, 'শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের সম্মিলিত প্রচেষ্টা আর অভিভাবকদের সাধনা এই প্রতিষ্ঠানের ধারাবাহিক সাফল্যের অন্যতম কারণ। . শিক্ষানগরী সৈয়দপুরকে প্রতিনিধিত্ব করা সৈয়দপুর সরকারি কারিগরি কলেজে শিক্ষার সুষ্ঠ পরিবেশ, শিক্ষকদের বন্ধুত্বপূর্ণ আচরণ আর প্রতিষ্ঠান প্রধানের সুদক্ষ মনিটরিংয়ে প্রতিবছর অসংখ্য শিক্ষার্থী দেশসেরা সব বিদ্যাপীঠে উচ্চ শিক্ষার সুযোগ পাচ্ছে। নিজের প্রতিভার বিকাশ ঘটাচ্ছে। পরবর্তীতে দেশ ও মানব সেবায় নিজেকে নিয়োজিত রাখছে। আর এভাবেই সৈয়দপুর সরকারি কারিগরি কলেজ উত্তরবঙ্গের মানুষের মন জয় করছে।।