ব্রেকিং নিউজ-
ঠাকুরগাঁয়ে তিন দিন পর নিখোঁজ গৃহপরিচারিকা উদ্ধার ** লালবাগ রেলওয়ে বস্তির ভুমিহীনদের অবিলম্বে সরকারী খাসজমিতে পুনর্বাসনের দাবিতে স্মারকলিপি পেশ** জনতা ব্যাংক লিঃ রংপুরে মহিলা গ্রাহক সেবা সপ্তাহ পালিত** রংপুরে ভিডিও কনফারেন্স এর মাধ্যমে শেখ রাসেল মিনি স্টেডিয়ামের উদ্বোধন ঘোষনা করেন – প্রধানমন্ত্রী** হাতীবান্ধায় পেঁপের বাম্পার ফলন** ডোমারে একই স্থানে কর্মী সম্মেলন-ফুটবল টুর্নামেন্ট নিয়ে উত্তেজনা** লালমনিরহাটের হাতীবান্ধায় ১০ কেজি গাঁজাসহ দুই সহদর আটক** রংপুর এক্সপ্রেসের ৪৫ যাত্রীর জরিমানা** কাল প্রধানমন্ত্রীর সংবাদ সম্মেলন** রংপুরে ক্রিকেট লীগের ৪র্থ রাউন্ড কাল শুরু**

বাংলাদেশের বিরুদ্ধে ইউটিউবে গুজব

নিউজ ডেক্স

রংপুর টুয়েন্টিফোর ডটকম , বিষেশ বুলেটিন

7 October, 2018 -> 9:51 am.

আবারও বাংলাদেশের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র। দু:খজনকভাবে এই ষড়যন্ত্রে ভিনদেশি কেউ জড়িত ছিলেন না। ঢাকায় বসবাসরত চাঁদপুরের দুইজন ব্যক্তি বাংলাদেশের অতি গুরুত্বপূর্ণ কিছু সরকারি প্রতিষ্ঠান এবং রাষ্ট্রের নিরাপত্তার কাজে নিয়োজিত ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে গুজব ছড়াচ্ছিলেন। ধারণা করা হয়, এই দুইজন পাকিস্তানের আই এস আইর কাছ থেকে আর্থিক এবং প্রযুক্তিগত সহায়তা নিয়ে কাজ করতেন। পাকিস্তান বাংলাদেশকে স্বীকৃতি দেয় ১৯৭৪-এর ২২ ফেব্রুয়ারী। জামায়াতে ইসলামী অবশ্য এর পরেও স্বাধীন বাংলাদেশকে মেনে নিতে পারেনি। চেষ্টা চালায় এই দেশকে আবারো পাকিস্তানের সাথে সংযুক্ত করতে। গোলাম আজম পাকিস্তানি নাগরিক হিসেবে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে গিয়ে বাংলাদেশকে একটি স্বাধীন ও সার্বভৌম রাষ্ট্র হিসেবে স্বীকৃতি না দিতে অনুরোধ জানাতে থাকেন। আন্তর্জাতিক চাপের মুখে পাকিস্তান একদিকে বাংলাদেশকে স্বীকৃতি দিলেও অন্যদিকে তাদের সামরিক বাহিনীর গোয়েন্দা সংস্থা আই এস আই বাংলাদেশ বিরোধী ষড়যন্ত্রে কোটি কোটি ডলার ব্যয় করতে থাকে। জামায়াতে ইসলামীকে তাদের মুখপাত্র হিসেবে নির্বাচিত করা হয়। এরই ধারাবাহিকতায় বাংলাদেশে ক্রমাগত আওয়ামী লীগ বিরোধী মনোভাব প্রচার করে জনমতকে অবচেতনে পাকিস্তানের প্রতি দুর্বল করা জামায়াতে ইসলামীর প্রধান উদ্দেশ্য বলে প্রমাণিত হয়। গ্রেপ্তারকৃত জামায়াতে ইসলামী বাংলাদেশের সর্বোচ্চ কয়েকজন নেতার ডায়েরী এবং কম্পিউটার জব্দ করে এই প্রমাণ পাওয়া গেছে। ইউটিউবে এদের প্রচারিত ভিডিওগুলোর শিরোনাম মিথ্যা, বানোয়াট তথ্য আর গুজবে পরিপূর্ণ। যেমন ‘রাষ্ট্রক্ষমতায় যাচ্ছে জামায়াত’! ‘হাসিনাকে অবাক করে ফখরুলকে গ্রীন সিগন্যাল দেখালো ইইউ’! ‘বিএনপির ৭ দফা নিয়ে সরকারকে আন্তর্জাতিক চাপ’! শুক্রবার রাতে উত্তরার ১৩ নম্বর সেক্টর থেকে থেকে খালিদ (৩০) ও হাসিবুল্লাহ (২১) নামের দুজনকে আটক করা হয়। তারা ভিডিও শেয়ারিং ওয়েবসাইট ইউটিউবে গুজব ছড়াতেন। এদের মধ্যে ইউটিউব চ্যানেল এসকে টিভি’র একজন এডমিন রয়েছেন। সেই সাথে বেশ কিছু কম্পিউটার সামগ্রী জব্দ করা হয়। দুজনেরই বাড়িই চাঁদপুরে। খালিদের বাবা নুর আহমেদ চাঁদপুরের একটি মাদ্রাসার শিক্ষক। আটক ব্যক্তিরা দীর্ঘদিন ধরে ইউটিউবে এসকে টিভি নামে চ্যানেল চালু করে রাষ্ট্রের অতি গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানের আপত্তিকর ও মানহানিকর ভিডিও আপলোড করে আসছিল। জানা যায়, খালিদ দুই ভাই ও এক বোনের মধ্যে দ্বিতীয়। সে ২০০৮ সালে উচ্চ মাধ্যমিক পাশ করার পর বিবিএতে পড়ার পাশপাশি একটি স্কুলে শিক্ষকতা করতো। ছোট ভাইয়ের মাধ্যমে ইউটিউবে ভিডিও আপলোড ও এডিটিং শেখে খালিদ। খালিদ ছাত্র শিবির এবং তার বাবা জামায়াতের রাজনীতির সাথে জড়িত। ইউটিউব চ্যানেলের সে অ্যাডমিন। দুই বছর যাবত সে এটা পরিচালনা করে আসছে, তাকে সহায়তা করছে হিজবুল্লাহ। হিজবুল্লাহ মহাখালীর একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে বিবিএ পড়ছে। পাশাপাশি একটি ডায়াগনস্টিক সেন্টারে কম্পিউটার অপারেটর হিসাবে চাকুরি করছে। এক বন্ধুর মাধ্যমে খালিদের সঙ্গে তার পরিচয় হয়। হিজবুল্লাহ র‌্যাবকে বলেছে, সে প্রায় দেড় বছর ধরে ইউটিউব চ্যানেলের সাথে জড়িত। খালিদই তাকে এই চ্যানেলের সাথে জড়িত হওয়ার প্রস্তাব দেয়।