শিরোনাম-
কুড়িগ্রাম উলিপুরে স্কুল শিক্ষিকা অপহরনের চেষ্টা** 'হাসিনাকে হত্যা করতে গ্রেনেড হামলা হয়েছিল' রংপুর জেলা আওয়ামীলীগের দোয়া মাহফিল ও আলোচনা সভায় রেজাউল করিম রাজু ** দিনাজপুরে গোর-এ শহিদ ময়দানে ঈদের জামাত ৯টায়** ঠাকুরগাঁওয়ে চাচার হাতে ভাতিজি খুন** রংপুরে শেষ মূহুর্তে জমে উঠেছে ঈদের কেনাকাটা** রংপুরে ক্যান্সারে আক্রান্ত দীপ্ত টিভির সাংবাদিকের সুস্থতার জন্য ওয়াদুদ আলীর দোয়া কামনা ** রংপুরে ঈদের প্রধান জামাত সাড়ে ৮টায়** যেভাবে কোরবানির পশুর যত্ন নিতে হবে** লালমনিরহাট ২ বিএনপি র মনোনয়ন প্রত্যাশী তালিকায় ইন্জিনিয়ার কামাল এগিয়ে** লালমনিরহাটের কালীগঞ্জের বিভ্ন্নি গ্রামে ঈদুল আযহার নামাজ আদায় **

‘বিএনপি-জামায়াতের অর্জন দুর্নীতি ও টাকা পাচার’

অনলাইন নিউজ

রংপুর টুয়েন্টিফোর ডটকম , নিউজ ডেক্স

10 August, 2018 -> 8:43 am.

নৌপরিবহন মন্ত্রী শাজাহান খান বলেছেন, আমাদের সরকার যখন দেশ থেকে মাদক নির্মূলে যুদ্ধ ঘোষণা করেছে, সেখানে বিএনপি এই মাদকবিরোধী যুদ্ধের বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়েছে। শুক্রবার বেলা ১১টায় দেশের তৃতীয় পায়রা সমুদ্রবন্দরের পাঁচতলা নবনির্মিত প্রশাসনিক ভবন ও পায়রা বন্দর নির্মাণে জমি অধিগ্রহণে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের ১৮-৩৫ বছরের সদস্যদের পুনর্বাসনের লক্ষ্যে কর্মসংস্থানে কর্মদক্ষতার উন্নয়নে শুরু করা তিনটি ক্যাটাগরির প্রশিক্ষণ কর্মসূচির আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন পরবর্তী এক সমাবেশে এসব বলেছেন। বিএনপি-জামায়াত জোটকে উদ্দেশ করে মন্ত্রী বলেন, তাদের অর্জন ছিল দুর্নীতি। বাংলাদেশ থেকে টাকা পাচার করা। খাম্বা তৈরি করে বিদ্যুৎ না দেয়া। পেট্রোল দিয়ে মানুষ খুন করা। তারা যানবাহনের ৯২ জন ড্রাইভার, ১৭ জন পুলিশসহ শত শত মানুষকে পুড়িয়ে হত্যা করেছে। তিনি বিএনপি-জামায়াতের নেতাকর্মীদের পরামর্শ দেন পদ্মা সেতু নির্মাণ সম্পন্ন হলে আপনারা ওই সেতুর ওপর দিয়ে চলাচল করবেন না। কারণ আপনাদের নেত্রী খালেদা জিয়া পদ্মা সেতু দিয়ে চলাচল করতে নিষেধ করেছেন। মন্ত্রী আরও বলেন, প্রধানমন্ত্রী শত বাধা-প্রতিবন্ধকতা উপেক্ষা করে দুঃসাহসিক চ্যালেঞ্জ নিয়ে নিজেদের অর্থায়নে পদ্মা সেতুর নির্মাণ কাজ করে যাচ্ছেন। তখন ড. ইউনূসসহ বিএনপি চক্র এ সেতু নির্মাণে বাধা দিয়েছে। ষড়যন্ত্র করেছে সেতুর নির্মাণ কাজ বন্ধের জন্য। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, সাবেক পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী মাহবুবুর রহমান এমপি, পটুয়াখালীর জেলা প্রশাসক ড. মো. মাছুমুর রহমান। সভাপতির বক্তব্য দেন- নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. আব্দুস সামাদ। স্বাগত বক্তব্য দেন- পায়রা বন্দর কর্তৃপক্ষ চেয়ারম্যান কমডোর এম জাহাঙ্গীর আলম। পায়রা বন্দর কর্তৃপক্ষের দেয়া তথ্যমতে, ১২ কোটি ৭০ লাখ টাকা ব্যয় নির্মিত প্রশসনিক ভবনটির প্রত্যেক ফ্লোরের আয়তন ৫৮০০ বর্গফুট। এছাড়া ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের ১৫০ জনকে প্রথম পর্যায়ে কম্পিউটার বেসিক, রাজমিস্ত্রি এবং ড্রাইভিং তিনটি কোর্সের প্রশিক্ষণ কার্যক্রম শুরু করা হয়। তিন মাসব্যাপী এই প্রশিক্ষণার্থীরা দৈনিক ৩০০ টাকা ভাতা পাবেন। পাবেন নাস্তার সুবিধা। পর্যায়ক্রমে অধিগ্রহণে ক্ষতিগ্রস্ত অন্তত ৩৫০০ জনকে ৩৫টি ক্যাটাগরিতে প্রায় তিন বছর এই প্রশিক্ষণ কার্যক্রম চলমান থাকবে।