ধরলার পানি বৃদ্ধিতে কালভার্ট ভেঙ্গে যোগাযোগ বিছিন্ন

শাহার্রুপ সুমন

নিজস্ব প্রতিবেদক, লালমনিরহাট

27 June, 2019 -> 4:25 am.

বর্ষন ও ধরলা নদীর পানি বৃদ্ধি হওয়ার কারণে লালমনিরহাট সদর উপজেলার কুলাঘাট ইউনিয়নের ওয়াপদা বাজারের শীরের কুটি চরের পাকা রাস্তার একটি কালর্ভাট ভেঙ্গে গেছে। যার ফলে ওই এলাকার মানুষরা জীবনের ঝুকি নিয়ে নৌকায় পারাপাড় হচ্ছেন। যোগাযোগ ব্যবস্থা সচল করতে জেলা প্রশাসনের পক্ষ বালু'র বস্তা ফেলে ভেঙ্গে যাওয়া অংশ মেরামত শুরু করেছেন। এদিকে ধরলা নদীর পানি বাড়তি চাপে কালর্ভাটটি ১১০ মিটার ভেঙ্গে যাওয়াতে ৪টি গ্রামের ১০ হাজার মানুষ আটকা পড়েছে। পানি উন্নয়ন বোর্ড সুত্রে জানা যায়, মঙ্গলবার রাত ৯টার থেকে মুসুলধারে বৃষ্টি কারণে ধরলার পানি এক দশমিক ৭২ সেন্টিমিটার বৃদ্ধি পায়। যার ফলে বুধবার সকালে কিছু অংশ ভেঙ্গে গিয়ে বিকেলে তা বেড়ে ১১০ মিটার ভেঙ্গে যায়। এতে করে রাস্তার পূর্ব পাশ্বের বোয়ালমারী চর, খারুয়ার চর,বাশপচাই, দক্ষি শিবেরকুটি গ্রামের ১০ হাজার মানুষ চরম ভোগান্তিতে পড়েছে। লালমনিরহাট শহরের একমাত্র একটি সড়কের যোগাযোগ বন্ধ হয়ে গেছে। যার কারণে সকাল থেকে ওই এলাকার মানুষরা জীবনের ঝুকি নিয়ে নৌকা দিয়ে পারাপাড় হচ্ছেন। এদিকে লালমনিরহাট শহরের বেশকয়কটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা সাময়িক চলাচলালের জন্য সেচ্চাশ্রম দিচ্ছেন পানি উন্নয়ন বোর্ড ও সওজকে। সদর উপজেলা ভুমি অফিসের সহকারী কমিশনার(ভুমি) জি.আর সরোয়ার দৈনিক অধিকারকে জানান, চরঅ লের মানুষদের একমাত্র সড়ক ভেঙ্গে যাওয়া সড়ক যোগাযোগ সচল করতে বালু'র বস্তা ফেলে মেরামত করা হচ্ছে। লালমনিরহাট পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী আরিফুল ইসলাম জানান,ধরলার পানি বৃদ্ধি হওয়ার কারণে কালভার্ট ভেঙ্গে গেছে। তবে বিকেল থেকে ধরলার পানি কমতে শুরু করেছে। যোগাযোগ সাভাবিক করতে যৌথ কাজ করছে পানি উন্নয়ন বোর্ড ও সওজের শ্রমিকরা।