গঙ্গাচড়া হাটের জায়গায় ভূমি অফিস করায় প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত

সুজন আহম্মেদ

গঙ্গাচড়া প্রতিনিধি , রংপুর

11 June, 2019 -> 11:53 am.

গঙ্গাচড়া হাটের খোলা বাজারের জায়গা ভূমি অফিস করায় প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। উপজেলার সচেতন নাগরিকদের আয়োজনে গত সোমবার রাতে উপজেলা বাজারের জিরো পয়েন্টে অনুষ্ঠিত প্রতিবাদ সভায় উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মোঃ সাজু মিয়া সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন উপজেলা জাতীয় পার্টির সাধারণ সম্পাদক আবুল কালাম আজাদ, বি.আর.ডিবি’র সাবেক চেয়ারম্যান ও আওয়ামীলীগ নেতা মাজহারুল ইসলাম লেবু, উপজেলা আওয়ামীলীগের সদস্য আব্দুল খালেক মেম্বার, মোস্তাফিজার রহমান, উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি ও উপজেলা পরিষদের সাবেক মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ক্ষ্যান্ত রানী রায়, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের আহ্বায়ক জাহেদুল ইসলাম প্রমুখ। বক্তারা বলেন, গঙ্গাচড়া মডেল থানার সামনে গঙ্গাচড়া বাজারে শুধুমাত্র ৯৬ শতক জমির মধ্যে গড়ে উঠেছে খোলা বাজার। বর্তমান খোলা বাজার হিসেবে ব্যবহৃত ওই খাস জমি বিগত সময়ে একটি দাতব্য প্রতিষ্ঠানের মালিকানাধীন জমি ছিল। প্রতিষ্ঠানটি গড়ে উঠেছিল ১৯১৭ সালে। যা ১৯৫৬ সালে তৎকালীন সরকারের নামে খাস খতিয়ানে রেকর্ড ভূক্ত হয়। সেখানে প্রায় ১০০ বছর থেকে হাটের দিন শনিবার ও বুধবার উপজেলার বাসিন্দারা কাঠের আসবাবপত্র, গরু ছাগল, হাঁস মুরগী, কবুতর ক্রয়-বিক্রয় করে। এছাড়া কৃষকরা তাদের উৎপাদিত ধান, পাট, তামাকসহ নানা জাতের ফল মূল বিক্রি করে। সম্প্রতি খোলা বাজারের ওই জায়গায় উপজেলা প্রশাসন উপজেলা ভূমি অফিস করার পরিকল্পনা করে। বিষয়টি জানাজানি হলে গঙ্গাচড়া হাটের খোলা বাজারের একমাত্র ওই জায়গাটি বন্ধ হওয়ার আশঙ্কায় উপজেলাবাসীর মধ্যে চরম ক্ষোভ বিরাজ করে। উপজেলার সচেতন নাগরিকরা বলেন, ওই জায়গাটি বন্ধ হলে আমাদের ক্রয়-বিক্রয়ের আর কোন জায়গা থাকবে না। সরকার হাট থেকে প্রাপ্ত মোটা অংকের রাজস্ব থেকে বি ত হবে। তারা খোলা বাজারের ওই জায়গাটি বন্ধ না করে উপজেলা পরিষদ ক্যাম্পাসের ভিতরে উপজেলা ভূমি অফিস স্থাপনের দাবী জানান।