রংপুরে বাবা মুক্তিযোদ্ধার স্বীকৃতি না পাওয়ায় মেয়ের সংবাদ সন্মেলন

নিউজ ডেক্স

রংপুর টুয়েন্টিফোর ডটকম , রংপুর

13 March, 2019 -> 4:22 am.

মুক্তিযোদ্ধা ইসমাইল হোসেন ১৯৭১ সালে জীবনবাজি রেখে দেশের জন্য যুদ্ধে যোগ দেন। লড়াই-সংগ্রামে মৃত্যু ঝুঁকি নিয়েও পিছু হটেননি। ধৈর্য ও সাহসিকতা দিয়ে শত্রু সেনার বিপক্ষে অগ্রণী ভূমিকা পালন করেন। শেষে সমুখ যুদ্ধে পাকসেনারা নিষ্ঠুর ভাবে গুলি করে হত্যা করে আমার বাবাকে। আজ দুপুরে রংপুর নগরীর কেল্লাবন্দ চওড়া পাড়া নিজ বাড়ীতে সংবাদ সন্মেলনে এসব কথা বলেন মরহুম বীর মুক্তিযোদ্ধা ঈসমাইল হোসেনের মেয়ে মেরিনা বেগম। তিনি মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে বাবার মুক্তিযোদ্ধের স্বীকৃতি চেয়ে সাংবাদিকদের সাথে এ সংবাদ সন্মেলন করেন।