ব্রেকিং নিউজ-
নতজানু নীতি পরিহার করে তিস্তা-সহ ৫৪টি অভিন্ন নদীর পানির ন্যায্য হিস্যা আদায় করুন--------কমরেড খালেকুজ্জামান** রংপুরে দুদিন ব্যাপী ফ্রি ডেন্টাল ক্যাম্প উদ্ভোধন ** রংপুরে হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ এর ৯০ তম জন্মদিন পালন ** রংপুরে নিরাপদ সড়কের দাবিতে মানব্বন্ধন সমাবেশ ** উলিপুরে ‘দৈনিক ভোরের ডাক’ পত্রিকার প্রতিষ্ঠা বার্ষিকা পালিত** রংপুরে সিলেকশন গ্রেড এর দাবিতে মানব বন্ধন ও পরিচালকের কার্যালয় ঘেরাও ** কাদেরের বাইপাস সার্জারি চলছে, দেশবাসীর দোয়া কামনা** রংপুর জেলা রেস্তোরাঁ শ্রমিক ইউনিয়নের বিশেষ সাধারন সভা অনুষ্ঠিত** লালমনিরহাটের হাতীবান্ধায় অগ্নিকান্ডে প্রায় ৯ লক্ষ টাকার ক্ষয়ক্ষতি** রংপুরে আ.লীগের প্রার্থীকে গ্রেপ্তারের দাবিতে মহাসড়ক অবরোধ **

এরশাদকে স্বৈরাচার বললে হৃদয়ে রক্তক্ষরণ হয়

নিউজ ডেক্স

রংপুর টুয়েন্টিফোর ডটকম , সারা বাংলা

5 March, 2019 -> 9:54 am.

জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য ও ঢাকা- ৪ আসনের সাংসদ সৈয়দ আবু হোসেন বাবলা বলেছেন, আমার নেতা হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ আওয়ামী লীগকে রাষ্ট্র ক্ষমতায় আনার জন্য সব সময় শেখ হাসিনার পাশে থাকেন। যিনি এই দেশের উন্নয়নের অন্যতম রুপকার, সাবেক সফল রাষ্ট্রনায়ক, সাবেক সফল সেনাবাহিনী প্রধান এবং বর্তমানের বিরোধী দলীয় নেতা সেই পল্লীবন্ধু এরশাদকে জাতীয় সংসদের দাঁড়িয়ে কোনো এমপি স্বৈরাচার বললে আমাদের হৃদয়ে শুধু আঘাত লাগে না, রক্তক্ষরণ হয়। মঙ্গলবার জাতীয় সংসদে রাষ্ট্রপতির ভাষণের ওপর ধন্যবাদ প্রস্তাবের আলোচনায় অংশ নিয়ে তিনি এসব কথা বলেন। তিনি বলেন, আমার নেতার নাম উচ্চারণ করার আগে কোনো ধরনের সম্মানসূচক শব্দ প্রয়োগ করার ব্যাপারেও তারা (এমপিরা) কৃপণতা করেন। এটি আমরা সরকারি দলের বন্ধুদের কাছে প্রত্যাশা করি না। বাবলা বলেন, প্রায়ই দেখা যায়, সংসদে যে কোনো বিষয়ের ওপর আলোচনার সময় সরকারি দলের কয়েকজন এমপি প্রাসঙ্গিক বা অপ্রাসঙ্গিকভাবে একটি বিশেষ দলের নাম উচ্চারণ করেন এবং সেই দলের নেতা-নেত্রীর নাম নিয়ে সংসদে আলোচনা-সমালোচনা করে বক্তব্য দেন। তারা এমন একটি দলের ও দলের নেতাদের নিয়ে সমালোচনা করেন, যে দলটিকে এই দেশের মানুষ বারবার প্রত্যাখান করছে। অথচ সেই দল নিয়ে সংসদে আলোচনা করে জনগণের করের টাকা অপচয় করেন। প্রথমত তাদের দলের প্রচারের কাজটি সরকারি দলের কয়েকজন এমপি খুব ভালোভাবেই করে যাচ্ছেন। শুধু সংসদে নয়, সংসদের বাইরে বিভিন্ন সভা-সমাবেশে ওই বিশেষ দলটি নিয়ে বা দলটির নেতাদের নিয়ে বক্তব্য রাখেন। তিনি আরও বলেন, গত পাঁচ বছরে আমাদের দায়িত্ব পালনকে ইতিবাচকভাবে নিতে পারেননি কথাকথিত কিছু সুশীল সমাজের কর্তাবাবুরা। তারা আমাদের নিয়ে সমালোচনা করে মিডিয়াতে বক্তব্য দিয়েছেন। মধ্যরাতের টক শো'তে গিয়েও কতিপয় বুদ্ধিজীবী ও সাংবাদিক বন্ধুরা আমাদের সমালোচনা করেছেন।