ঠাকুরগাঁওয়ে ৫ জনের মৃত্যু পরিবারকে ২০ হাজার টাকার চেক দিয়েছে জেলা প্রশাসন

নিউজ ডেক্স

রংপুর টুয়েন্টিফোর ডটকম , ঠাকুরগাঁও

28 February, 2019 -> 9:41 am.

ঠাকুরগাঁও জেলার বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার ধনতলা ইউনিয়নের ভান্ডারদহ মরিচপাড়া গ্রামে অজ্ঞাত একটি রোগে মাত্র ২০ দিনের ব্যবধানে একই পরিবারের ৫ জনের মৃত্যুর ঘটনায় ঐ পরিবারকে ঠাকুরগাঁও জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে ২০ হাজার টাকা আর্থিক সহায়তা প্রদান করা হয়েছে। ২৮ ফেব্রুয়ারি বৃহস্পতিবার দুপুর ২টার সময় বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার ধনতলা ইউনিয়নের ভান্ডারদহ মরিচপাড়া গ্রামে পরিদর্শন শেষে মৃত আবু তাহেরের বাবা ফজর আলীর হাতে ২০ হাজার টাকার চেক তুলে দেন ঠাকুরগাঁও জেলা প্রশাসক ড. কে এম কামরুজ্জামান সেলিম। ঘটনাস্থল পরিদর্শনের সময় তিনি মৃতের পরিবারে লোকজন ও এলকাবাসীর সাথে কথা বলেন এবং তাদেরকে আতঙ্কিত না হবার পরামর্শ প্রদান করেন। পরিদর্শন শেষে ঠাকুরগাঁও জেলা প্রশাসক বলেন, ঘটনাটি জানার সাথে সাথেই উপজেলা প্রশাসন এলাকায় মাইকিং করে ১ কিলোমিটার চলাচলে নিষেধাজ্ঞা, এলাকার দুটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ, নিরাপদে চলাচলের জন্য ২ শতাধিক মার্ক বিতরণ করে ভাল করেছে। মৃতদের মরদেহ দাফন কাজের খরচ বাবদ জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে ২০ হাজার সহায়তা প্রদান করা হয়েছে। এছাড়াও মৃত্যুর আসল কারণ জানার জন্য রোগতত্ত¡, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষনা প্রতিষ্ঠানের ৫ সদস্যের একটি টিম এবং রাজশাহী মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের একটি টিম এলাকায় এসেছেন। তারা নমুনা সংগ্রহ করে ঢাকায় ল্যাবে পাঠাবেন। ল্যাবে পরীক্ষা করেই রিপোর্ট আসলেই মৃত্যুর সঠিক কারণ জানা যাবে বলে জানান তিনি। তিনি আরও বলেন, প্রশাসন যে কোন সমস্যায় সাধারণ মানুষের পাশে থাকবে। কোন ধরণের সময় সমস্যা সৃষ্টি হলে দ্রুত প্রশাসনের লোকজনকে অবগত করার পরামর্শও প্রদান করেন তিনি। ঘটনাস্থল পরিদর্শনের সময় বালিয়াডাঙ্গী উপজেলা নির্বাহী অফিসার মাসুদুর রহমান মাসুদ, উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান নাজিয়া এমদাদ, স্থানীয় ধনতলা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সমর চ্যাটার্জী নুপুর সাথে ছিলেন। এর আগে গত বুধবার দুপুরে আবু তাহেরের বাড়ী পরিদর্শন করেছে ঢাকা থেকে আসা রোগতত্ত¡, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষনা প্রতিষ্ঠানের ৫ সদস্যের একটি তদন্ত টিম। প্রসঙ্গত, গত ৯ ফেব্রুয়ারি অজ্ঞাত একটি রোগে ভান্ডারদহ মরিচপাড়া গ্রামের ফজর আলীর ছেলে আবু তাহের (৫৫) মৃত্যুবরণ করেন। এরপর ২১ ফেব্রুয়ারি একই দিনে মারা যান আবু তাহেরের জামাতা হাবিবুর রহমান (৩৫) ও স্ত্রী হোসনে আরা (৪৫)। এর দুইদিন পর ২৪ ফেব্রুয়ারি আবু তাহেরের দুই ছেলে ইউসুফ আলী (৩০) ও মেহেদী হাসান মৃত্যুবরণ ও ওই পরিবারের ৬/৭ জন অসুস্থ্য হলে এলাকায় আতঙ্ক সৃষ্টি হয় ।