ব্রেকিং নিউজ-
নতজানু নীতি পরিহার করে তিস্তা-সহ ৫৪টি অভিন্ন নদীর পানির ন্যায্য হিস্যা আদায় করুন--------কমরেড খালেকুজ্জামান** রংপুরে দুদিন ব্যাপী ফ্রি ডেন্টাল ক্যাম্প উদ্ভোধন ** রংপুরে হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ এর ৯০ তম জন্মদিন পালন ** রংপুরে নিরাপদ সড়কের দাবিতে মানব্বন্ধন সমাবেশ ** উলিপুরে ‘দৈনিক ভোরের ডাক’ পত্রিকার প্রতিষ্ঠা বার্ষিকা পালিত** রংপুরে সিলেকশন গ্রেড এর দাবিতে মানব বন্ধন ও পরিচালকের কার্যালয় ঘেরাও ** কাদেরের বাইপাস সার্জারি চলছে, দেশবাসীর দোয়া কামনা** রংপুর জেলা রেস্তোরাঁ শ্রমিক ইউনিয়নের বিশেষ সাধারন সভা অনুষ্ঠিত** লালমনিরহাটের হাতীবান্ধায় অগ্নিকান্ডে প্রায় ৯ লক্ষ টাকার ক্ষয়ক্ষতি** রংপুরে আ.লীগের প্রার্থীকে গ্রেপ্তারের দাবিতে মহাসড়ক অবরোধ **

মরহুম সাংবাদিক নদীর টাকা আত্মসাৎ করে ভালই আছেন লম্পট সাব্বির

নিউজ ডেক্স

রংপুর টুয়েন্টিফোর ডটকম , সারা বাংলা

26 February, 2019 -> 3:43 am.

হ্যালো প্রিন্স ভাই বলছেন।একটা সুখবর আছে। আপনি যে বলেছিলেন মরহুম সাংবাদিক সুবর্ণ নদীর মেয়ের জন্য আপনার কাছে টাকা জমা আছে সেটা পাঠিয়ে দেন আজ এক্ষনে। চেয়ারম্যান আরো এক লক্ষ টাকা চেক দিবে সাংবাদিক নদীর এতিম মেয়ের জন্য আপনাদের টাকাটাও ঐ চেকের সাথে দিলে অনেক ভালো হবে। ওকে ঠিক আছে বস আমি আজকেই পাঠিয়ে দিবো বিকাশ করে। হ্যা ঠিক আছে তাই দেন - দেরি করিয়েন না আবার চেয়ারম্যান সাহেব চলে যাবে ওকে বস আধাঘন্টার মধ্যেই পাঠিয়ে দিবো। কথা গুলি হচ্চেছিলো সে সময় আনন্দ টিভিতে চাকুরীরত সাংবাদিক সাব্বির এর সাথে। তিনি সেখানকার একজন কর্মকর্তা হিসেবে নিয়োজিত ছিলেন। তিনি অন্তঃরাল নামে একটি অনুষ্ঠান করার নামে বহু পাবলিকের অর্থ আত্মসাৎ করেছে অনেক দুর্নীতির কবলে পড়ে অবশেষে আনন্দ টিভি থেকে বহিঃস্কার করা হয়েছে এটা একজন সাংবাদিকের জন্য অত্যন্ত লজ্জাজনক। যে টাকা টা আত্মসাত করে সাব্বির আজ বড় বড় স্ট্যাটাস দিচ্ছে সোশ্যাল মিডিয়াতে ধিক জানাই এই অপসাংবাদিকতা। উলেখ্য গত ২৮ আগষ্ট মঙ্গলবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে সুবর্ণা আক্তার নদী শহর থেকে কাজ শেষে রাধানগর মহল্লায় আদর্শ গার্লস হাইস্কুল সংলগ্ন বাসার সামনে পৌঁছামাত্র ওঁৎপেতে থাকা দুর্বৃত্তরা তাকে এলোপাতারি কুপিয়ে ফেলে রেখে পালিয়ে যায়। পরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে পাবনা জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। সুবর্ণা স্থানীয় অনলাইন পোর্টাল ‘দৈনিক জাগ্রত বাংলা’র সম্পাদক ও প্রকাশক ও আনন্দ টিভির পাবনা প্রতিনিধি ছিলেন। তার ৫/৬ বছরের একটি কন্যা সন্তান রয়েছে।আর এই মনে করে সহকর্মীর মর্মান্তিক মৃত্যুতে আমরা আনন্দ টিভির প্রতিনিধিরা শোকাহত হয়ে মিছিল মিটিং মানববন্ধন যা যা করা লাগে নদীর জন্য তাই করলাম।সে সময় আমাদের চেয়ারম্যান মহোদয় পর্যন্ত নদীর বিচারের দাবিতে রাস্তায় এসে আমাদের সঙ্গে দাঁড়িয়ে কাঁদ মিলিয়ে ছিলেন। পরে আমরা সবাই মিলে সারা বাংলাদেশের প্রতিনিধিদের কাছ থেকে যে যা পারি নদীর মেয়ের জন্য ছোট একটা তহবিল গঠন করি। শুরু হয় তহবিলে টাকা জমানো। সবশেষ ১৯ ডিসেম্বর১৮ ইং তারিখে ঐ লম্পট সাংঘাতিক সাব্বিরের ফোন পেয়ে সকাল ১১ টায় তার দেওয়া এজেন্ট নম্বরে ১৫ হাজার টাকা এবং বিকাশের পারসোনাল নম্বরে প্রথমে ১০ হাজার এবং এক ঘন্টা পরে আরো ৭ হাজার টাকা আমার নিজ নম্বর থেকে পাঠাই। যার প্রমান আমার কাছে আছে। কিন্তু আজ পর্যন্ত সাব্বির সাংবাদিক এই টাকা টা আমাকে ফেরত দিলো না বা পাবনায় নদীর মেয়ের কাছে পাঠালো না। কি করে তার বিবেক কাজ করলো আমাদের এই কষ্টের টাকা টা একটা গরীব এতিম বাচ্চার জন্য দেওয়া টাকা টা মেরে দিলো। আমি নিজেই অনেকবার তার সাথে যোগাযোগ করলে ঐ লম্পট সাংবাদিক নামে কলঙ্ক তথাকথিত সাংবাদিক সাব্বির আমাকে বিভিন্ন ভাবে মামলার হুমকি দেখিয়ে অনেক গালিগালাজ করে এবং টাকা টা দিতে অস্বীকার করে। উল্টো গত ২৩ ফেব্রয়ারি লম্পট সাংঘাতিক আনিছুর হক সাব্বির তার ফেসবুক টাইম লাইনে আনন্দ টিভি থেকে আমার চাকুরীচুত্য করার জন্য বিভিন্ন ফোনালাপ এডিটিং করে প্রকাশ করে। আমি তথাকথিত এই সাংবাদিক সাব্বির এর বিচার দাবি করছি সারাদেশের সাংবাদিক সমাজের কাছে। আমার মত একজন মফস্বল সাংবাদিক কে ঠকিয়ে একজন অনাথ এতিম শিশুর টাকা আত্মসাৎ করে এখনো কিভাবে রাজধানীর মতো নগরে সাংবাদিকতা করে যাচ্ছে এটা প্রশ্ন থাকলো এই সমাজের আয়না বিবেকবানদের কাছে।